নরসিংদীর ঘোড়াদিয়া গ্রামের ১৪ জনকে হত্যার প্রতিবাদে স্মরণ সভা

১৯৭১ সনে মুক্তিযুদ্ধকালে নরসিংদী শহরতলীর ঘোড়াদিয়া গ্রামের বিশিষ্ট সমাজসেবক ও ব্যবসায়ী মুরারী মোহন সাহাসহ ১৪ জন গ্রামবাসীকে নৃসংশভাবে হত্যা করে পাক হানাদার বাহিনী। তাদের স্মরণে গতকাল শনিবার শহীদ মুরারী মোহন সাহার বাড়ীতে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিনেট সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা রঞ্জিত কুমার সাহা। শহীদ মুরারি মোহন সাহা সহ ১৪ জনকে ১৯৭১ সনের ২২ জুন রাজাকারদের সহযোগিতায় পাকবাহিনী তাদের বাড়ী থেকে ধরে নিয়ে যায়। এ দিন রাতেই নরসিংদী শহরের সন্নিকটে খাটেহারা ব্রিজের নীচে পাক বাহিনী তাদেরকে এক এক করে বেয়নট দিয়ে খুচিয়ে খুচিয়ে নৃসংশভাবে হত্যা করে লাশ ব্রীজের পাশেই ফেলে দেয়। এই মর্মান্তিক নৃসংশ ঘটনার বর্ণনা দিয়ে বক্তব্য রাখেন চিনিশপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. নুরুজ্জামান। শহীদ মুরারী মোহন সাহার ছেলে সুপদ চন্দ্র সাহা, শংকর চন্দ্র সাহা, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আরমান, ইউপি সদস্য নারায়ন চন্দ্র সাহা, নরসিংদী প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি নিবারণ রায় প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। বক্তাগণ মুরারী মোহন সাহা সহ ১৪ জন গ্রামবাসীর হত্যার প্রতিবাদে পাকবাহিনীর ধুসর রাজাকার আল বদরদের বিচারের জোর দাবী জানান। চিনিশপুর ইউনয়িন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. নুরুজ্জামান তাদের স্মরণে একটি স্মৃতিস্তম্ভ নির্মাণের জন্য ১ লক্ষ টাকা প্রদান ঘোষণা দেন।

99 total views, 3 views today