স্টাফ রিপোর্টার: নরসিংদীর মাধবদী সবচেয়ে বেশি শিল্প কারখানা স্থাপিত হয়েছে। পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি সরবরাহের সুবিধার্থে এলাকা ভিত্তিক প্রতিনিধি নিয়োগের মাধ্যমে কাজের গতিশীলতা রক্ষা করে থাকে। জানা গেছে, পল্লী বিদ্যুৎ-১ এর মাধবদী এলাকার পরিচালক ৬, ৭নং হাজী মো. আছমত আলী, হাজী মো. শওকত আলী তাদের সুন্দর ভাবে সেবা করে থাকেন। সেবা দিতে গিয়ে তারা প্রতিহিংসার স্বীকার হয়েছেন বলে জানিয়েছেন। তারা অভিযোগ করেছেন একটি মহল বিশেষ সিন্ডিকেট করে অবৈধভাবে মিল কারখানায় বিদ্যুৎ সরবরাহ করে আর্থিক লাভবান হচ্ছে। পরিচালকদের দাবী এ সকল অসৎ লোকজন তাদের বাধা মনে করে মিথ্যা তথ্য প্রমাণ দেখিয়ে তাদের বরখাস্ত করেন। হাজী মো. আছমত আলী ও হাজী মো. শওকত আলী তাদের বরখাস্তের বিরুদ্ধে মহামান্য হাই-কোর্টে স্বরণাপন্ন হন। কোর্ট এ আদেশের স্থগিতাদেশ প্রদান করেন। কিন্তু পল্লী বিদ্যুৎ-১ কোন কিছুর তোয়াক্কা না করে তাদের স্থায়ী ভাবে বরখাস্ত করেন। ৬, ৭ নং এলাকার পরিচালক পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ মাধবদী শাখার সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার এ.জেড.এম আজাদ এর বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন, তিনি মহামান্য হাই কোর্টে মামলা চলাকালীন অবস্থায় নিয়ম বহির্ভূত ভাবে ৬,৭ নং এলাকার পরিচালক প্রভাবশালীদের যোগসাজসে সিলিকশনের মাধ্যমে এডহক কমিটি গঠন করছেন।
এ ব্যাপারে নরসিংদী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির-১  মাধবদী শাখার সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার এ.জেড.এম আজাদের সাথে আলাপ করলে তিনি জানান, ৬, ৭ নং পরিচালক বরখাস্ত করা রয়েছে।  ৬, ৭ নং এলাকার পরিচালক নির্বাচনের ব্যাপারে আর.ই.বি চেয়ারম্যান ঢাকা, নরসিংদী পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির-১ সহ ৫ সদস্যের একটি বায়োডাটা যাচাই বাছাই কমিটি গঠন করা হয়েছে। এ কমিটির মাধ্যমে স্ব-স্ব এলাকা হতে আগ্রহী প্রার্থীদের বায়োডাটা সংগ্রহ করা হচ্ছে। এ কমিটির মাধ্যমে ৬,৭ নং এলাকার পরিচালক পদে কিংবা কোনো এডহক কমিটি করা হয়নি বলে তিনি প্রতিবেদককে জানান।

366 total views, 3 views today