গ্রামীণ দর্পণ ডেস্ক: মঙ্গলবার থেকে ভোটার তালিকা হালনাগাদের তথ্য সংগ্রহ শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এবার হালনাগাদে প্রায় ৮০ লাখ নাগরিকের তথ্য সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছে সাংবিধানিক সংস্থটি। বাড়ি বাড়ি গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করা হবে। এসময় আঠারো বছরের কম বয়সী (২০০৩/৪ সালের ১ জানুয়ারি বা তার আগে যাদের জন্ম) নাগরিকদেরও তথ্য নেওয়া হবে। এতে প্রথমে ১৩৫ উপজেলায় তথ্য নেওয়া হবে। ২৩ এপ্রিল থেকে শুরু হয়ে এই কার্যক্রম চলবে ১৩ মে পর্যন্ত। এদিকে ২৩ এপ্রিল মঙ্গলবার থেকে প্রথম ধাপের ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রম নরসিংদী জেলার মনোহরদী ও পলাশে চলছে হালনাগাদের কাজ।
সূত্র জানায়, যাদের জন্ম ১ জানুয়ারি ২০০১ বা তার আগে অথচ বিগত ভোটার তালিকা হালনাগাদ কার্যক্রমে বাদ পড়েছেন তাদের ভোটার হিসেবে নিবন্ধন করা হচ্ছে। কোনো কারণে তথ্য সংগ্রহের সময় কেউ যদি বাদ পড়েন তবে তিনি নিবন্ধন কেন্দ্রে গিয়েও তার তথ্য দিয়ে নিবন্ধিত হতে পারবেন। তথ্য সংগ্রহকারিগণ বাড়ি বাড়ি গিয়ে নতুন ও বাদ পড়া ভোটারদের তথ্য সংগ্রহ করবেন। এ সময় ভোটার তালিকা থেকে নাম কর্তনের জন্য মৃত ভোটারদের তথ্য সংগ্রহ করা হবে। ভোটার তালিকায় হালনাগাদ কার্যক্রমে মোট তথ্য সংগ্রহকারী থাকবে ৫২ হাজার ৫০০ জন, সুপারভাইজার ১০ হাজার ৫০০, টেকনিক্যাল সাপোর্টে থাকবে ৬৪ জন এবং রেজিস্ট্রেশন কেন্দ্র থাকবে ৭৮০ পয়েন্টে। প্রতি দুই হাজার নাগরিকের বিপরীতে একজন করে তথ্য সংগ্রহকারী নিয়োগ দেয়া হবে। পাঁচজন তথ্য সংগ্রহকারীর জন্য থাকবেন একজন সুপারভাইজার। প্রতি ৭০ জন নাগরিকের জন্য একজন করে ডাটা এন্ট্রি অপারেটর নিয়োগ করা হবে। বর্তমানে দেশে ভোটার রয়েছেন ১০ কোটি ৪১ লাখ ৩৮১ জন। তথ্য সংগ্রহের সময় কেউ বাদ পড়লে তিনি নিবন্ধন কেন্দ্রে গিয়েও তথ্য দিয়ে নিবন্ধিত হতে পারবেন। এছাড়াও নতুন ভোটার তালিকায় নাম তুলতে তথ্য সংগ্রহকারীর কাছে কিছু প্রয়োজনীয় তথ্য সরবরাহ করতে হবে।

276 total views, 3 views today