1. grameendarpan@gmail.com : admi2017 :
মঙ্গলবার, ০৪ অগাস্ট ২০২০, ০৬:৪৮ পূর্বাহ্ন

ভৈরবে মেয়েকে ইভটিজিং করার প্রতিবাদে বাবাকে ছুরিকাঘাত

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ২৬ জুন, ২০২০
  • ৩১ বার

এম আর ওয়াসিম, ভৈরব (কিশোরগঞ্জ) প্রতিনিধি: কিশোরগঞ্জের ভৈরবে শ্রীনগর ইউনিয়নে স্কুল পড়ুয়া মেয়েকে ইভটিজিং করার প্রতিবাদে বাবাকে ছুরিকাঘাত করে আহত করেছে এক বখাটে। আহতের নাম ডাঃ মোঃ তৌফিকুল ইসলাম (৪২)। বখাটের নাম রকি মিয়া (২২)। বখাটে রকি একই গ্রামের প্রবাসী রউফ মিয়ার পুত্র বলে জানা যায়। বুধবার সকালে ঘটনাটি ঘটেছে বলে জানা যায়।
আহত ডাঃ তৌফিকুল ইসলাম জানান, শ্রীনগর দক্ষিণ পাড়ার তিন রাস্তার মোড় দিয়ে আমার মেয়েসহ স্কুল শিক্ষার্থীরা প্রাইভেট পড়ার জন্য আসা যাওয়া করে। বখাটে রকি প্রতিদিনই মোড়ে দাঁড়িয়ে শিক্ষার্থীদের উত্যক্ত করে। আমি সমাজের একজন সচেতন নাগরিক হিসেবে তাকে এই ধরনের কর্মকান্ড করতে বারণ করি। তার পরিবার পরিজনকেও বিষয়টি অবগত করি করি। কিন্তু তাতেও কোন ফল পাওয়া যায়নি। প্রতিদিনের ন্যায় আজও সকালে রকি তিন রাস্তার মোড়ে দাঁড়িয়ে শিক্ষার্থীদের উত্যক্ত করতে দেখে আমি বাধা প্রদান করলে সে তার সাথে থাকা সুইছ গিয়ার (চাকু) দিয়ে মাথায় আঘাত করে দৌড়ে পালিয়ে যায়। পরে আমি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য অন্য একটি স্থানীয় হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা নিচ্ছি। আমি প্রশাসনের নিকট এই বখাটে রকির বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করছি।
গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায় যে রকি শ্রীনগরের কেরালা গ্রুপের একজন সদস্য। শ্রীনগর ইউনিয়নে বখাটে ও দুস্কৃতিকারী প্রকৃতির কিছু ছেলেদের নিয়ে ‘কেরালা’ নামে একটি গ্রুপ তৈরী করেছে। মাদক ব্যবসা থেকে শুরু করে সমাজে নানা প্রকার অপকর্মে লিপ্ত এই কেরালা গ্রুপের সদস্যরা। তাদের ভয়ে ভীত -সন্ত্রস্ত শ্রীনগর এলাকাবাসী।
এবিষয়ে শ্রীনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সার্জেন্ট আবু তাহের জানান, আমি বিষয়টি অবগত হয়েছি। রকি নামের বখাটে ছেলেটি দীর্ঘদিন ধরে তিন রাস্তার মোড়ে দাঁড়িয়ে শিক্ষার্থীদের উত্যক্ত করছে। আজ ডাঃ তৌফিকুল ইসলাম এর প্রতিবাদ করায় তাকে ছুরিকাঘাত করে আহত করা হয়েছে। রকির বাবা প্রবাসী রউফ মিয়া মাদক ব্যবসায়ী ছিল। তার মা নাদেরা বেগমও ইয়াবা ব্যবসা করে। সে শ্রীনগরের কেরালা বাহিনীর একজন সদস্য। আমি আইন-শৃংখলা বাহিনীর নিকট এঘটনার দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দাবী করছি।
ভৈরব থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ শাহিন বলেন এ বিষয়ে আমি একটি অভিযোগ পেয়েছি। অভিযোগ তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। তাছাড়া দীর্ঘদিন যাবত এমন ধরনের কর্মকান্ড চলছে কিন্তু উক্ত ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আমাকে অবগত করেনি। অবগত করলে আগেই ব্যবস্থা গ্রহণ করতাম।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..