নরসিংদীতে মানবপাচার অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালে দৃষ্টি প্রতিবন্ধীর মামলা দায়ের

0
167

রায়পুরা প্রতিনিধি: নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার জাহাঙ্গীরনগর গ্রামের ইদ্রিছ মিয়ার ছেলে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী মো. সিরাজ মিয়ার আকুতি আমার বউ শিল্পীকে আমার কাছে এনে দাও। এ ঘটনায় সিরাজ মিয়া বাদী হয়ে নরসিংদীর মানবপাচার অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালে একটি মামলা দায়ের করেছেন।
জানা যায়, গত ৩০/০৪/১৭ তারিখে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী সিরাজ মিয়ার স্ত্রী শিল্পী বেগমকে বিদেশে মহিলা মাদ্রাসায় ভাল চাকুরীর লোভ দেখিয়ে সৌদিআরবে প্রেরণ করে প্রতিবেশি নবিয়াবাদ গ্রামের শিশু ভুইয়ার ছেলে মঞ্জিল ভুইয়া। শিল্পীকে সৌদিআরবে পাঠানোর পর থেকে মাদ্রাসায় না দিয়ে চাকুরী দেয়া হয় এক বাসায়। যেখানে সে অনেক কষ্টে দিনাতিপাত করছেন বলে তার স্বামী জানায়। সেই সাথে তার উপর চলছে বিভিন্ন নির্যাতন। সে সৌদিআরব থেকে মাঝে মধ্যে ফোন করে তার স্বামীর কাছে কান্নাকাটি করে তার কষ্টের কথা জানান এবং দেশে ফিরিয়ে আনার আকুতি করেন। তার স্বামী দৃষ্টি প্রতিবন্ধী সিরাজ মিয়া স্ত্রী’র কষ্টের কথা শুনে পাগল প্রায়। নিরুপায় হয়ে স্ত্রীকে দেশে আনার জন্য দালাল মঞ্জিল ভুইয়ার ধারে ধারে ঘুরছেন বলে তিনি জানিয়েছেন।
দৃষ্টি প্রতিবন্ধী সিরাজ মিয়া জানান, আমার আর্থিক সরলতার সুযোগ নিয়ে মঞ্জিল মিয়া ও তার বোন রেনুফা বেগম আমার স্ত্রী ও আমাকে বৈধভাবে মহিলা মাদ্রাসায় চাকুরী করে মাসে ৩০ হাজার টাকা বেতনের লোভ দেখায়। তাদেরকে বিশ্বাস করে আমার স্ত্রী শিল্পীকে তাদের হাতে তুলে দেই। কিন্তু তারা আমার ও আমার স্ত্রীর সাথে প্রতারণা করে আমার স্ত্রীকে বিদেশে নিয়ে বিপদে ফেলে দেয়। এখন আমার স্ত্রী কোথায় আছে আমি জানি না। মাঝে মধ্যে সে বিভিন্ন নাম্বার থেকে ফোন দিয়ে কান্নাকাটি করে তাকে দেশে ফিরিয়ে আনার আকুতি জানায়।
এ ব্যাপারে মঞ্জিল মিয়ার কাছে জানতে চাইলে তিনি সকল অভিযোগ অস্বীকার বলে বলেন, তার স্ত্রী শিল্পী বেগম বিদেশে ভাল আছে। টাকা পাঠাচ্ছে নিয়মিত।
এ ঘটনায় সিরাজ মিয়া বাদী হয়ে গত ২৩/০৪/২০১৮ইং তারিখে নরসিংদী বিজ্ঞ মানবপাচার অপরাধ দমন ট্রাইব্যুনালে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

303 total views, 6 views today

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here