ভৈরবে শিশু ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে আদালতে মামলা

0
12

এম আর ওয়াসিম, কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি: কিশোরগঞ্জের ভৈরব উপজেলার কালিকাপ্রসাদ ইউনিয়নে স্বর্ণা নামে ১৩ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ পাওয়া গেছে চার বখাটের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেছে নির্যাতিত শিশুটির মা। এদিকে বখাটেদের অভিভাবকরা ভয়ভীতি দেখাচ্ছে বলে নির্যাতিত শিশুর পরিবারটির অভিযোগ। যার ফলে ভয়ে থানায় মামলা দিতে পারেনি। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটেছে।
পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, সোমবার শিশুটির মা সাহিদা বেগম বাদী হয়ে কিশোরগঞ্জের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-২ আদালতে শরীফ (২২), ফাহিম (১৮), বায়েজিদ (২৪) ও তৌহিদকে (২৬) মামলার আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন।
শিশুটির মা সাহিদা বেগম মামলায় উল্লেখ করেন যে, গত শুক্রবার সন্ধ্যায় ওই চার বখাটে তাদের বাড়িতে এসে মেয়েকে মুখ বেঁধে জোর করে ঘর থেকে বের করে পাশের উত্তর বন্ধে শামিম মিয়ার নির্জন কাঠ বাগানে নিয়ে যায়। এ সময় তিনি ও তাঁর স্বামী বাড়ির পাশে দক্ষিণ বন্দে একটি মাঠে ধান মাড়াই করছিলেন। মেয়েকে একা পেয়ে বখাটেরা ক্ষেতে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে এবং স্পর্শকাতর স্থানে কামড় ও চুম্বন করে। এ সময় মেয়ের চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে এলে বখাটেরা পালিয়ে যায়। পরে শিশুটির মায়ের প্রতিবেশী দেবর মিলন মিয়া ও মুর্শিদ মুন্সী শিশুটিকে উদ্ধার করে পরিবারের হাতে তুলে দেয় বলে জানায়।
মা সাহিদা বেগম ও বাবা নবাব মিয়া জানান, ঘটনার পর থেকে মামলা না করতে ও অন্য কাউকে না জানাতে আসামীদের পরিবারের লোকজন তাদের নানাভাবে হুমকি দিচ্ছে। আসামীর পক্ষ সমাজের অত্যন্ত দাপটে লোক হওয়ায় ভয়ে আতংকিত তারা। তাদের ভয়ে আমরা থানায় যেতে পারিনি। ফলে গোপনে কিশোরগঞ্জ আদালতে মামলা করেছি। বিষয়টি এলাকার চেয়ারম্যান-মেম্বারকে জানিয়েও কোন ফল পায়নি তারা।
কালিকাপ্রসাদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ফারুক মিয়া বলেন , এক মহিলার মোবাইল ফোনে তিনি ঘটনাটি জেনেছেন। তবে তিনি কয়েকদিন ভৈরবের বাহিরে থাকার কারনে কোন ব্যবস্থা নিতে পারেননি বলে জানান তিনি।

37 total views, 6 views today

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here