1. grameendarpan@gmail.com : admi2017 :
  2. taife.nur14@gmail.com : taifur nur : taifur nur
শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০৩:১৯ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
শিরোনাম :

চন্দনবাড়ী ইউনিয়নের সদস্য হাজী ওসমান গনি ৩য় বারের মতো নির্বাচিত

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৭ জানুয়ারী, ২০২২
  • ৫ বার

মো: জসিম উদ্দিন: নরসিংদী জেলাধীন মনোহরদী উপজেলার ৫ম ধাপে অনুষ্ঠিত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চন্দনবাড়ী ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের চন্দনপুর থেকে ইউপি সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন এক সময়ের দীর্ঘদিনের সৌদি আরবের প্রবাসী হাজী মুহা. ওসমান গনি। মাধুপুর চন্দনপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে সুষ্ঠুভাবে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে ৫৪০ ভোট পেয়ে হাজী ওসমান গনি এবার তৃতীয় বারের মত ইউপি সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর মার্কা ছিল ফুটবল। ওসমান গনি‘র নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন সবুজ মিয়া, মোরগ মার্কায় ৪৪৯ ভোট পেয়েছেন। হাজী মুহা. ওসমান গনি চন্দনপুর গ্রামের সুনামধন্য ব্যবসায়ী আবদুস ছোবহান এর সুযোগ্য বড় সন্তান। তাঁর মাতার নাম মরহুম মরিয়ম বেগম। ওসমান গনি এর পূর্বে ১৯৯৭ সালে সর্বপ্রথম ইউপি সদস্য নির্বাচিত হন এবং দ্বিতীয় বাবার নির্বাচিত হন ২০১২ সালে।
এরপূর্বে দু’বার ইউপি সদস্য হয়ে অত্যন্ত সুনামের সাথে তিনি দায়িত্ব পালন করেন। অসম্ভব রকমের নি:স্বার্থ পরোপকারী ভাল মানুষ হিসেবে হাজী ওসমান গনি পরিচিত একমুখ। ওসমান গনি ছাত্রজীবনে সমাজে মানুষের সেবা করতেন। তিনি এক সময় মরহুম অধ্যাপক নারায়ন চন্দ্র মোদকের নেতৃত্বে কমিউনিস্টপন্থী আওয়ামীলীগের রাজনীতি করতেন। রাজনৈতিক জীবনে ত্যাগের কারণে ওসমান গনিকে নরসিংদী জেলার কমিউনিস্ট পার্টির প্রবীণ নেতাগন চিনতেন। যারা চিনতেন তারা হলেন, নরসিংদীর খবর-এর প্রয়াত সম্পাদক বিশিষ্ট সাংবাদিক হাবিবুল্লাহ বাহার, আবদুল আজিজ খান, আবুল হাসিম মিয়া। তখন তিনি বেকার ছিলেন। সে সময় তার জীবনের অনেক দু:খ কষ্টের কথা আছে। সেগুলো না বললেই ভাল। তারপরও বাবার ধানের গোলা থেকে ফসলে ফসলে ধান বিক্রি করে কমিউনিস্ট পার্টির চাঁদা দিতেন। প্রতিদিনই পার্টির কাজে সময় দিতেন। দীর্ঘদিন এ রাজনীতির সাথে জড়িত থেকে তিনি কিছুই করতে না পেরে নিজের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে চাকুরি নিয়ে সৌদি আরবে চলে যান দেশের মায়া ছেড়ে। দীর্ঘদিন চাকুরী শেষে দেশে ফিরে আসেন তিনি। সৌদি আরবে অনেক বছর থাকার পর ওসমান গনির মাঝে ব্যাপক ইবাদতের পরিবর্তন আসে আল্লাহতাআলার রহমতে। দেশে ফিরে একই গ্রামের পশ্চিম পাড়ায় এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারের সদস্যা জাহানারা বেগমের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। তিনি একজন সুগৃহিনী, ভাল মানুষ ও গুনীজন। জাহানারার স্বামী ওসমান গনির সাথে সহযোগী হিসেবে জনগনের সেবা করে যাচ্ছেন এবং মৃত্যুর পূর্ব পর্যন্ত এ সেবা করে যাবেন। তারা দুজনই অত্যান্ত ত্যাগী মানুষ। এ দুজনই সংসার জীবনে খুবই সুখী মানুষ। তারা ৩ সন্তানের মা-বাবা।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..