1. grameendarpan@gmail.com : admi2017 :
রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ০৭:৩২ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
বজলুর রহমান ও শাহনারা বেগম ফাউন্ডেশনের পক্ষে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে ১০০ অক্সিজেন সিলিন্ডার প্রদান নরসিংদীতে কঠিন লকডাউনের ২য় দিনে ৩৭,২০০ টাকা জরিমানা আদায় করেছে মোবাইল কোর্ট নরসিংদীতে আবাবীল ফাউন্ডেশন দুইশত মানুষের মাঝে গোশত ও ঈদ সামগ্রী বিতরণ নরসিংদীতে একদিনে দুইজনের মৃত্যু ॥ ১৪২ জনের করোনা শনাক্ত র‌্যাব-১১ নরসিংদী’র অভিযানে চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার পলাতক আসামী আবু সিদ্দিক গ্রেফতার ব্যাপারটি আমাদের জাতীয় পন্ডিতরা একটু ভেবে দেখবেন কি? ঘোমটার নিচে খেমটা নাচের সাংবাদিকতা ময়মনসিংহরে ত্রিশালে জমে উঠছে কোরবানি পশুর হাট চামড়া শিল্প রক্ষার দাবীতে নরসিংদী ইশা ছাত্র আন্দোলনের মানববন্ধন অসহায় মানুষের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করলো ভেলানগর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়
শিরোনাম :
বজলুর রহমান ও শাহনারা বেগম ফাউন্ডেশনের পক্ষে নরসিংদী জেলা হাসপাতালে ১০০ অক্সিজেন সিলিন্ডার প্রদান নরসিংদীতে কঠিন লকডাউনের ২য় দিনে ৩৭,২০০ টাকা জরিমানা আদায় করেছে মোবাইল কোর্ট নরসিংদীতে আবাবীল ফাউন্ডেশন দুইশত মানুষের মাঝে গোশত ও ঈদ সামগ্রী বিতরণ নরসিংদীতে একদিনে দুইজনের মৃত্যু ॥ ১৪২ জনের করোনা শনাক্ত র‌্যাব-১১ নরসিংদী’র অভিযানে চাঞ্চল্যকর হত্যা মামলার পলাতক আসামী আবু সিদ্দিক গ্রেফতার ব্যাপারটি আমাদের জাতীয় পন্ডিতরা একটু ভেবে দেখবেন কি? ঘোমটার নিচে খেমটা নাচের সাংবাদিকতা ময়মনসিংহরে ত্রিশালে জমে উঠছে কোরবানি পশুর হাট চামড়া শিল্প রক্ষার দাবীতে নরসিংদী ইশা ছাত্র আন্দোলনের মানববন্ধন অসহায় মানুষের মাঝে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ করলো ভেলানগর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়

শিবপুরে রাতের আঁধারে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন

স্টাফ রিপোর্টার:
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৯ জুলাই, ২০২১
  • ২৪ বার

দুলালপুর ইউনিয়নের চন্ডীবর্দী গ্রামে প্রসাশনের নজরদারির দাবি
নরসিংদীর শিবপুরে শিবপুরে কৃষি জমি থেকে অধৈভাবে বালু উত্তোলন চলছে। অনেকটা দাপটের সঙ্গেই গভীর রাত থেকে সকাল পর্যন্ত দুলালপুর ইউনিয়নের চন্ডীবর্দী গ্রামের জাকির, সাদ্দাম, হারুন বালু উত্তোলনের মহোদৎসবে মেতেছে। এই বালুদস্যুদের অতিরিক্ত মাটি পরিবহনে নষ্ট হচ্ছে গ্রামীণ সড়ক ও সাধারণ মানুষের বসত ভিটা।
উপজেলার দুলালপুর ও মাছিমপুর ইউনিয়নে কয়েকবার ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করলেও আবার রাতের আঁধারে বালু উত্তোলন অব্যাহত থাকে। বালুদস্যুরা প্রথমে মাঠের মাঝখানে কম দামে জমি কেনে। এরপর সেই ফসলি জমি থেকে শুরু করে মাটি বিক্রি। সেই সঙ্গে রাতে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে তোলা হয় বালু। তৈরি হয় বিশাল আকাড়ে গর্ত। পরে আশেপাশের জমি ভাঙতে শুরু করে। এরপর বয় দেখিয়ে ওইসব ফসলি জমি কিনে শুরু করা হয় মাটি-বালু উত্তোলন। এভাবেই কৃষিজমি সর্বনাশ করা হচ্ছে। ফলে বসতিবাড়ি, রাস্তাঘাটসহ বিভিন্ন স্থাপনা ধসে যাচ্ছে এবং হুমকির মুখে পড়ছে পরিবেশ।
স্থানীয়রা জানান, দুলালপুরের চন্ডীবর্দী গ্রামের জাকির, সাদ্দাম, হারুণ দীর্ঘদিন যাবত অবৈধভাবে বালু উত্তোলন করে আসছে। অতিরিক্তি বালু উত্তোলনের ফলে বসত ভিটা ঝূকিপূর্ণ হয়ে যাচ্ছে। সরকারি রাস্তা ভেঙ্গে যাচ্ছে। এভাবে বালু উত্তোলন করতে থাকলে আমাদের বাড়িঘর গর্তে ভিলিন হয়ে যাবে। তাই প্রসাশনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। দ্রæত এর ব্যবস্থান নেয়ার দাবি জানাচ্ছি।
সরেজমিনে দেখা গেছে, দুলালপুরের চন্ডীবর্দী গ্রামের জাকির, সাদ্দাম রাতের আঁধারে বালু উত্তোলন করে সকালে ট্রাকের মাধ্যমে পরিবহন করে। কয়েকজন সংবাদকর্মীকে দেখে তারা ড্রেজার মেশিন বন্ধ করে দেয়। আর সাংবাদিকদের সাথে অশোভন আচরণ করে সাদ্দাম ও জাকির। পরে তারা প্রসাশন তাদের কিছুই করতে পারবে না বলে বৃদ্ধাঙ্গলি দেখায়।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ কয়েকজন ব্যক্তি জানায়, জাকির, সাদ্দাম, হারুন এলাকায় দীর্ঘদিন যাবত বালু উত্তোলন করে। কেউ প্রতিবাদ করলে হামলার শিকার হচ্ছে। তারা দাপট খাটিয়ে জুরপূর্বক মাটি খনন করেই যাচ্ছে। তারা অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন করে বিক্রি করে টাকার পাহাড় করছে।
দুলালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মেরাজুল হক মেরাজ বলেন, সরকারি আইনকে বৃদ্ধঙ্গুলি দেখিয়ে ফসলি জমি কেটে অবাধে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। আর এসব মাটি পরিবহনের ফলে গ্রামীণ সড়ক নষ্ট হচ্ছে। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে মাটি-বালু উত্তোলন বন্ধ করে দেয়া হয়। এরপর দু একদিন বন্ধু থাকলেও আবার আগের অবস্থায় ফিরে আসে।
উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অদিদপ্তরের কর্মকর্তা মোহাম্মদ বিন সাদেক বলেন, ফসলি জমির মাটি কাটার কোন সুযোগ নেই। জমির উপরিভাগের মাটি কাটার কারণে উর্বরতা শক্তি কমে যায়। আর বালু উত্তোলন করা হলে ধসে গিয়ে বড় বড় গর্ত হয়ে বিনষ্ট হবে। তাই যেকোনো মূল্যে কৃষি জমি রক্ষা করতে হবে। বিষয়টি সবাই গুরুত্বেও সঙ্গে দেখার অনুরোধ করেন তিনি।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. কাবিরুল ইসলাম খান জানান, অনুমতি ছাড়া জমির শ্রেণি পরিবর্তন করা আইন অনুযায়ী দন্ডনীয় অপরাধ। তাই ফসলি জমি কেটে মাটি-বালু উত্তোলনের খবর পেয়ে একাধিক ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়েছে। জরিমানা সহ বেশ কয়েকটি খননযন্ত্র জব্দ করে ধ্বংস করা হয়েছে। এই অভিযান চলমান রয়েছে। খোঁজখবর নিয়ে সব বন্ধ করে দেয়া হবে বলে আশ^াস দেন তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..